কিভাবে ইমেইল পাঠাতে হয়

আপনি পৃথীবির যে প্রান্তেই থাকুন না কেন, আপনার বন্ধু-বান্ধব এবং পরিবারের সদস্যদের সাথে যোগাযোগ করার জন্য ইমেইল হচ্ছে চমৎকার এবং সহজ একটি উপায়। কিভাবে ইমেইল পাঠাতে হয় বা Send Email কীওয়ার্ড দিয়ে ইংরেজী অনেক আর্টিকেল রয়েছে । কিন্তু বাংলা ভাষায়- কিভাবে ইমেইল পাঠাতে হয় এই বিষয়ে নির্ভরযোগ্য কোন আর্টিকেল নেই। তাহলে আসুন দেখে নেই  কিভাবে ইমেইল পাঠাতে হয়। Send email বা ইমেইল পাঠানোর জন্য আপনার প্রথম প্রয়োজন হবে একটি ইমেইল একাউন্ট। অসংখ্য ইমেইল সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং বেশি পরিমানে ব্যবহৃত প্রতিষ্ঠান হল- জিমেইল, ইয়াহু, আউটলুক। এই প্রতিষ্ঠানগুলোর ডেস্কটপ ভার্সনের পাশাপাশি রয়েছে ফ্রি মোবাইল এপ। এসব ভার্সনে – কিভাবে ইমেইল পাঠাতে হয় সেটি খুব সহজেই বুঝতে পারবেন।

বর্তমানে জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন গুগল এর প্রতিষ্ঠান www.gmail.com এ গিয়ে আপনি আপনার মেইল একাউন্ট খুলে নিতে পারেন। আর জিমেইল এ Send email এর সাথে গুগল ড্রাইভ, ইউটিউব, এডস্যান্স, এডোয়ার্ড ইত্যাদি অনেকগুলো সুবিধা পাবেন একসাথে। তাই জিমেইল এ ইমেইল একাউন্ট খোলাটাই আমি প্রেপার করি। আমি ধরে নিচ্ছি  আপনাদের  একটি Send email একাউন্ট আছে। তাই কিভাবে ইমেইল পাঠাতে হয় সেটা আমি জিমেইল একাউন্ট থেকে দেখাব। যদি আপনাদের ইয়াহু বা অন্য কোন মেইল একাউন্ট হয়ে থাকে তাহলেও সমস্যা নেই। মূল বিষয় ও প্রক্রিয়া একই।

www.gmail.com  এই ওয়েবসাইটে আপনার ব্রাউজার ব্যবহার করে ঢুকুন। সাইন ইন বাটন খুঁজে, মেইল একাউন্ট খোলার সময় যে ইউজার নেম এবং পাসওয়ার্ড দিয়েছেন, একই ইউজার নেম এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে সাইন ইন করুন। সাইন ইন করার পর এরকম স্ক্রিন দেখতে পাবেন: 

কিভাবে ইমেইল পাঠাতে হয়।

 

কিভাবে ইমেইল পাঠাতে হয় জানার জন্য  Compose বাটনে ক্লিক করুন। এই বাটনের ক্লিক করলে একটি নতুন ইমেইল টেমপ্লেট খুলবে। এই টেম্পলেটে “To”  লেখা স্থানে যাকে আপনি ইমেইল পাঠাতে চান তাঁর ইমেইল এড্রেস টাইপ করুন বা কিভাবে ইমেইল পাঠাতে হয় তা প্র্যাক্টিস করার জন্য আপনার কোন বন্ধুর ইমেইল এড্রেস টাইপ করুন। কোন ইমেইল এড্রেস দেখতে এরকম হয়- ilovebanglabubhow@gmail.com  

ন। সাইন ইন বাটন খুঁজে, মেইল একাউন্ট খোলার সময় যে ইউজার নেম এবং পাসওয়ার্ড দিয়েছেন, একই ইউজারনেম এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে সাইন ইন করুন। সাইন ইন করার পর এরকম স্ক্রিন দেখতে পাবেন।

 

সাধারনত  “To”   এর মধ্যেই বা এর নিচে Cc নামের আরেকটি অপশন থাকে, এতে একাধিক ব্যাক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে একসাথে মেইল করার জন্য তাদের ইমেইল এড্রেস লেখা হয়।

পরের লাইনে Subject  লেখার জন্য একটি টেক্সট ফিল্ড পাবেন, এটি অপশনাল, না লিখলেও অসুবিধা নেই। তবে এই Subject আপনার পাঠানো ইমেইলটিকে নতুন প্রান দিতে পারে, তাই এটি লিখলে ভাল।ধরুন, আপনি আপনার অফিসের বসকে কোন ব্যালেন্স শিটের ফাইল পাঠাবেন তাহলে Subject এ লিখতে পারেন- Balance Sheet. তাহলে আপনার বস বুঝতে পারবে এই মেইলটি কোন  বিষয়ে লেখা হয়েছে।

কিভাবে ইমেইল পাঠাতে হয়।

 

এবার আপনার ইমেইলের মূল বিষয়বস্তু লেখার পালা, এটি Subject ফিল্ড এর একদম নিচে সাদা খালি অংশটি। এই অংশে আপনি যে বিষয়ে মেইল পাঠাতে চান তাঁর বিস্তারিত বর্ননা দিন। বিস্তারিত লেখা শেষ হলে, একদম নিচে ডানে বা বামে সেন্ড বাটন দেখতে পাবেন, এই সেন্ড বাটনের পাশেই ফরম্যাটিং অপশন পাবেন, যা দিয়ে আপনার লেখা বড়-ছোট এবং বিভিন্ন ভাবে সাজাতে পারবেন। এছাড়া কোন ফাইল, ফটো, ভিডিও, ডকুমেন্ট  এটাচ করার জন্য ফরম্যাটিং বাটনের পাশেই আরেকটি বাটন দেখতে পাবেন এবং সেটা আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী ব্যবহার করতে পারবেন। আপনার মেইলটি লেখা এবং এডিটিং শেষ হলে মেইলটি পাঠানোর জন্য সেন্ড বাটনে ক্লিক করুন। সেন্ড বাটন একেবারে নিচে বামে বা ডানের দিকে থাকে।

কিভাবে ইমেইল পাঠাতে হয়

 

ক্লিক করার সাথে সাথেই যার ঠিকানায় ইমেইল পাঠালেন তাঁর কাছে ইমেইলটি চলে যাবে। ইমেইলটি সেন্ড হওয়ার পর একটি সাকসেসফুল মেসেজ পাবেন। ব্যাস আপনি মেইল পাঠানো শিখে গেলেন। 

প্রিয় পাঠক, এতক্ষন শুধু কিভাবে ইমেইল পাঠাতে হয় তা পড়লেন, এবার মোবাইল বা কম্পিউটার খুলে প্র্যাকটিস করুন- কিভাবে ইমেইল পাঠাতে হয়।