কিভাবে Heir Style নির্বাচন করবেন

আমায় কোন ধরনের চুলের স্টাইলে মানাবে? নতুন চুলের কাটিং ভাল মানিয়েছেতো ? আমাদের সবার মনেই এমন প্রশ্ন জেগেছে, কেউ কেউ অনলাইনে অনেক সার্চও করেছি। পারফেক্ট চুলের স্টাইলের  জন্য সবার আগে আপনার মুখ বা মুখের আকৃতি বা ফেস শেপ কেমন তা জানতে হবে। আপনাকে কেমন চুলের স্টাইল মানাবে তা বুঝতে হলে আগে জানতে হবে আপনার মুখ বা মুখের বাহ্যিক অবয়ব কেমন। ইন্টারনেটে বিভিন্ন ধরনের মুখ বা ফেস শেপ এর কথা বলা থাকলেও ওভাল, রাউন্ড, স্কয়ার, ট্রাইএংগেল এই চারটি মুখ আকৃতি বা ফেস শেপকেই একেবারে ফান্ডামেন্টাল  ফেসশেপ বলে ধরা হয়। কিন্তু প্রশ্ন হল কিভাবে আপনি বুঝবেন আপনার মুখ বা ফেস শেপ কেমন এবং কোন ধরনের চুলের কাটিং মানাবে আপনাকে ?


Related Post: সেরা ৫৮টি ফেসবুক স্ট্যাটাস


সবচেয়ে ভাল হয় একটা মেজার টেপ দিয়ে মেজার করা। প্রথমে কপালের এপাশ থেকে ওপাশ মেজার করুন, এবার আপনার মুখ বা মুখের নিচের অংশ মেজার করুন- কপাল থেকে (যেখান থেকে চুল শুরু) মুখ বা মুখের নিচের অংশ অর্থাৎ থুতনি পর্যন্ত মেজার করুন। প্রয়োজনে মেজারমেন্টটি লিখে রাখুন। মেজারমেন্ট অনুযায়ি লম্বায় এবং পাশের এভারেজ দিয়ে বের করে ফেলতে পারেন  আপনার মুখ আকৃতি বা ফেস শেপের ধরন।

ওভাল ফেস শেপঃ

কপাল যদি থুতনি থেকে কিছুটা চওয়া হয় এবং মুখ যদি লম্বায় ১.৫ টাইম কপাল থেকে বেশি হয়, তাহলে ধরে নিতে পারেন আপনার ওভাল মুখ বা ফেস শেপ। ওভাল নিয়ে যারা জন্ম গ্রহন করেছেন তারা খুবই ভাগ্যবান, কারন ওভাল এমন এক মুখ শেপ যা সব ধরনের চুলের স্টাইলের সাথে যায়। এদের নতুন চুলের কাটিং pixie কাট হলে ভালো মানায়।

রাউন্ড  মুখ বা ফেস শেপঃ

যদি কপাল থেকে থুতনি পর্যন্ত এবং মুখের বামপাশ থেকে ডান পাশে সমান হয় তাহলে আপনার রাউন্ড মুখ বা ফেস শেপ। রাউন্ড মুখ বা ফেস শেপ এর লোকদের চুলের স্টাইল Sharp angle হলে ভাল মানায়।

স্কয়ার ফেসশেপঃ

মুখের বাম এবং ডান পাশের এভারেজ যদি একই হয় এবং পুরো ফেস থেকে যদি মুখের নিচের অংশ একটু চওড়া হয় তাহলে আপনার স্কয়ার ফেস শেপ। স্কয়ার এ  Under Cut, Fades Cut, Buzz Cut  দেয়া যেতে পারে। কারন এদের এই চুলের কাটিং এ অসাম লাগে।

ট্রাইএঙ্গেল মুখ বা ফেস শেপঃ

ট্রাইএঙ্গেল মুখ বা ফেসশেপ এ আপনার মুখ বা ফেস কিছুটা স্কয়ার মনে হতে পারে এবং আপনাকে বেশ ইয়াং লাগবে, থুতনি কিছুটা চওড়া হবে কপাল থেকে। স্কয়ার এর মত আপনাদের নতুন চুলের কাটিং Under Cut, Fades Cut ভাল মানায়।

তবে আরো ভাল হয় দু-তিনটি চুলের স্টাইল বা চুলের কাটিং এক দু বার দিয়ে চেক করানো আসলে আপনাকে কোন চুলের স্টাইল সুট করবে। আর না হয় আপনি নিজে এসব বিশ্লেষনের দিকে না গিয়ে দক্ষ কারো কাছে আপনার চুলের কাটিং কেমন হলে ভাল হয় জিজ্ঞেস করে নিতে পারেন। তবে খেয়াল রাখবেন নতুন চুলের কাটিং দেয়ার সময় মুখের আকৃতি অনুযায়ি যেন চুলের স্টাইলটা হয়।


Related Post: এডোবি ফটোশপ টিউটোরিয়াল


নিচে কমেন্টস বক্সে আর্টিকেল বিষয়ে মতামত দিন

শেয়ার করার মাধ্যমে আপনার বন্ধুদের এই আর্টিকেল বিষয়ে জানার সুযোগ করে দিন