ভালো শ্রোতা হওয়ার কৌশল

আমরা জাতি গত ভাবে কথা বলি বেশি, কাজ করি কম, শুনি কম। তাই কবি কুসুম কুমারি দাস লিখেছেন – আমাদের দেশে হবে সেই ছেলে কবে, কথায় না বড় হয়ে, কাজে বড় হবে। আমরা কেউ শুধু কথা বলায় ব্যস্ত বা কেউ ভাল কাজ করছি সেটা বোঝাতে ব্যস্ত। আমরা যেমন নীরবে সাফল্যের জন্য কাজ করতে পারি না, তেমনি নিরবে মনোযোগি হয়ে অন্যের কথাও শুনতে পারি না। ফলে অন্যের আকর্ষনের কেন্দ্রেও পোঁছতে পারি না। চলুন জেনে নেই ভাল শ্রোতা হওয়ার কৌশল গুলো।

আপনি যত বেশি অন্যের কথা মন দিয়ে শুনবেন, তত বেশি আপনাকে তাদের ভালো লাগবে। তারা ভাববে আপনি খুব সমঝদার, রসিক এমনকি কথাবার্তাতেও ওস্তাদ। আবার যখনই আপনি বলবেন কম, শুনবেন বেশি, দেখবেন আপনাকে সবাই পছন্দ করা শুরু করেছে। আসলে ভালো শ্রোতা হতে পারলে আপনি চুপচাপ শুনেও, অন্যের মনে স্থান করে নিতে পারেন, যদি আপনি জানেন ভালো শ্রোতা হওয়ার মূল টেকনিক গুলো কি।

একজন ভালো শ্রোতা, লোকেরদের মন জয় করার ব্যাপারে সবসময়েই একজন বাকপটুর চেয়ে এগিয়ে থাকে। কেননা একজন ভালো শ্রোতা, সবসময়ই অন্যদের সুযোগ করে দেয় তাদের প্রিয় বক্তাটির কথা শুনতে, যা সে নিজেই।

একজন ভালো শ্রোতা হতে পারলে আপনি যা উপকার, উপহার আর উল্লাসে থাকতে পারবেন তা হয়তো অনেক কথা বলার মাঝে নাও পেতে পারেন। কেননা কথা বললে সে কথাটি আপনার পক্ষে বা বিপক্ষে যেতে পারে যা চুপ থেকে অন্যের কথা শোনাতে হবে না।তবে ভালো শ্রোতা কেউ এমনি হয় না। কয়েকটি ইফেক্টিভ নিয়ম আছে যেগুলো মেনে চলার অভ্যাস করলে ভাল শ্রোতা হওয়ার পথে আপনি কয়েক ধাপ এগিয়ে যাবেন।


Related Post:জেনে নিন আপনার প্রকৃত বন্ধু কে


 ১। যিনি কথা বলছেন তাঁর মুখের দিকে তাকান,তাঁর গুরুত্ব দিন। আর যিনি শোনার যোগ্য কথা বলেন, তিনি তাকিয়ে দেখারও যোগ্য।

২। বক্তার দিকে খানিকটা ঝুঁকে মন দিয়ে কথা গুলো শুনুন। ভাবখানা এমন করুন যেন আপনি তার মুখনিঃসৃত একটি শব্দও বাদ দিতে চান না।

৩। প্রশ্ন করতে থাকুন। এতে বক্তা নিশ্চিত হন যে আপনি তার কথাগুলো শুনছেন। প্রশ্ন করুন বক্তার আলোচনার বিষয় নিয়েই।

৪।বক্তার আলোচনার বিষয় থেকে সরবেন না, মাঝপথে বাধা দেবেন না। তিনি কথা শেষ না করা পর্যন্ত অন্য প্রসঙ্গে যাবেন না। যতই আপনি ভেতরে ভেতরে অন্য কোনো কথা তোলার জন্য ছটফট করেন।

৫। “আপনি”, “আপনার”, “আপনাকে”, এই শব্দগুলো বেশি ব্যবহার করুন। যদি ক্রমাগত “আমি”, আমার”, “আমাকে” উচ্চারন করেন তা হলে আপনি মূল কেন্দ্রবিন্দু থেকে বক্তাকে সরিয়ে  দিয়ে নিজেকে বসালেন। আর তা হলে তো আপনিই বক্তা হয়ে গেলেন, শ্রোতা রইলেন কোথায়।

বুঝতেই পারছেন এই সূত্র নেহাতই ভদ্রতার নিয়ম ছাড়া আর কিছু নয়। শ্রোতা হয়ে এই সামান্য ভদ্রতার দ্বারা আপনি যতটা লাভবান হবেন, আর কিছুতেই সে লাভ করতে পারবেন না। তাই ভাল শ্রোতা হওয়ার কৌশল গুলে এপ্লাই করে এগিয়ে যান সাফল্যময় জীবনের পথে।


Related Post: জেনে নিন আপনার প্রকৃত বন্ধু কে


নিচে কমেন্টস বক্সে আর্টিকেল বিষয়ে মতামত দিন

শেয়ার করার মাধ্যমে আপনার বন্ধুদের এই আর্টিকেল বিষয়ে জানার সুযোগ করে দিন