কিভাবে সহজ উপায়ে ৪ সপ্তাহে ওজন কমাবেন

জামাইবাবুতো দেখছি আগের ছেয়ে অনেক মোটা হয়ে গেছেন, ও বাবা! ভুড়িওতো দেখছি অনেক দূর এগিয়েছে। রুপা কি আপনার যত্ন আত্তি করে না নাকি? এরকম করে মোটা হতে থাকলে তো আপনাকে কয়েক দিন পর কাভার ভ্যানে করে চলাফেরা করতে হবে। তখন আমাদের মেয়েটার কী হবে? যদি আপনাকে রোজ রোজ এরকম কোন কথা শুনতে হয়- তাহলে সময় এসে গেছে এক্ষুনি- ঠিক এই মুহূর্ত থেকেই আপনার বাড়তি ওজনের দিকে নজর দেয়ার। আর নজর দেয়া মানে কিন্তু এইনা, ১ টা Selfi তুলে মোবাইলে আপনার নিজের ছবি Zoom করে কয়েকবার দেখা। এর মানে হল এক্ষুনি ওজন কমানোর জন্য অল্প সময়ে আয়ত্ত্ব করা যায় এবং সহজে ওজন কমানো যায়, এমন উপায় গুলো খুজে বের করে, সেগুলো বাস্তব জীবনে মেনে চলা। সহজ উপায়ের কথা বলছি এ কারনে, আসলে ওজন কমাতে উদ্যমী হয়ে আমরা শুরু করি ঠিক কিন্তু কয়েকদিনের মধ্যেই- Diet Chart, 30 Days Course, 40  Days Success Formula এবং Best Supliment এসব Apply করে যখন দেখি আসলে কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না- আর তখনি ধুর ছাই!!! বলে Quiet করে দেই আমরা। তাই শুরুতে যদি ছোট ছোট Easy Steps নিয়ে এগুতে পারি তাহলে একদিকে যেমন আমাদের ভাল অভ্যাস তৈরি হবে অন্য দিকে তৈরি হওয়া অভ্যাসগুলোর কারনে কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আছে এমন পদ্ধতি অবলম্বন ছাড়াই আমরা আমাদের ওজন কমাতে পারব। সেজন্যে ওজন কমানোর অনেকগুলো সহজ উপায়ের মধ্যে বাছাই করে কার্যকরি ১১টি উপায়- (যার মধ্যে ১ এবং ২নং আমার কাছে সবছেয়ে বেশি কার্যকরি মনে হয়েছে) তা আজ আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করতে চলেছি। যদি ৪ সপ্তাহে এই ১১টি উপায় ধারাবাহিকতার সাথে মেনে চলতে পারেন- তাহলে আমি নিশ্চিতভাবে বলতে পারি আপনার শরীর থেকে বাড়তি ওজন কমে আপনি আরো Slim  এবং Handsome হয়ে উঠবেন। তো চলুন জেনে নেয়া যাক।


সত্যি করে বলো তো- আজ কি আপনি দাঁত ব্রাশ করেছেন? কি বললেন? এখনও করেন নি? তাহলে ভিডিওটি Pause করে এক্ষুনি Brush করে আসুন। কারণ সকালে নাস্তা করার পর এবং ঘুমানোর আগে Brushing দাঁতের সুস্থতা এবং মুখের সতেজতা নিশ্চিত করে। এর থেকে বেশি Exciting News হল- Catholic University এর করা প্রায় ১৫০০০ মানুষের উপর পরিচালিত রিচার্সের ফলাফল। তারা দেখেন ব্রাশ করলে কেবল দাঁত সুরক্ষিতই থাকেনা, এটি ওজন কমাতেও ভূমিকা রাখে।

ব্যাখা হিসেবে গবেষক দল বলছেন ব্রাশ করার পর আমাদের ব্রেন মনে করে আমাদের খাওয়া দাওয়ার পর্ব শেষ। তাই যেহেতু আমাদের খাওয়া দাওয়া শেষ মানে আমরা খেয়ে ফেলেছি সে কারনে ব্রেন দীর্ঘক্ষন কোন ক্ষুধা তৈরি করে না। ফলে ক্ষুধা না থাকায় আমাদের অতিরিক্ত খেতেও হয় না।

So, Weight Losing Tips No-11

Brush Your Teeth More Often


কথায় আছে- Out OF Sight, Out of Mind. মানে চোখের আড়াল হলে, মনেরও আড়াল হয়। তাই আপনার বাসায় যত Unhealthy খাবার আছে সেসব খাবার Hide করুন বা হাতের নাগালের বাইরে রাখুন। যাতে ইচ্ছে করলে খুব সহজেই মানে হাত বাড়ালেই সেসব খাবার পাওয়া না যায়। Unhealthy এবং ওজন বাড়ায় এমন খাবার গুলোর পরিবর্তে হাতের কাছেই পানি, ডাব, শাক-সবজি, সুষম খাবারসহ ওজন কমাতে ভূমিকা রাখে এমন খাবারগুলো রাখুন। তাহলে ধীরে ধীরে Unhealthy খাবারের পরিবর্তে মানে যেসব খাবার ওজন বাড়ায় তার পরিবর্তে যেসব খাবার ওজন কমায় সেসবে অভ্যস্ত হয়ে উঠবেন। যার ফলে আপানার ওজনও কমবে।

So, Weight losing Tips Number: 10

Hide Unhealthy Foods.


স্রষ্টা রাতকে তৈরি করেছেন বিশ্রাম এবং ঘুমের জন্য আর দিনকে কর্মময় এবং আলোকিত করেছেন। তাই দিনের বেলা ধুমকে না বলুন। পবিত্র কুরানের এই বানীর স্বপক্ষে মতামত দিয়েছেন আদুনিক যুগের চিকিৎসা বিজ্ঞানীরাও। তারা বলছেন যেসব মানুষ রাতে নিদ্রাহীন থাকে এবং দিনের বেলায় ঘুমায় আবার অনেকেই রাতে পূর্ণ তৃপ্তি সহকারে ঘুমানোর পরেও সুযোগ ফেলেই দিনে একটু ঘুমিয়ে নেন- তাদের স্বাস্থ্য ঝুঁকি বাড়ছে। কেননা দিনের বেলায় ঘুমালে আমাদের শরীরের ক্যালোরিগুলো ঠিক্মত বার্ন হয় না। যার ফলে ক্যালোরিগুলো শরীরেই জমা হতে থাকে।যদি আমরা দিনে কর্মঠ থাকতাম তাহলে ক্যালরীও বার্ণ হয়ে যেত এবং ফ্যাট হিসেবে জমে আমাদের ওজনও বাড়াতে পারত না। তাই যে কোন মূল্যেই হোক- Day Time Naps থেকে বিরত থাকতে হবে।

So, Weight losing Tips Number-09

Forget About Day Time Naps.


কেউ আমাদের জন্য একটি গোলাব ফুল নিয়ে এসেছে এটি আমরা কখনোই চিন্তা করতে পারি না। বরং যদি চিন্তার প্রয়োজন হয় আমরা এর উল্টোটা করি। অর্থাৎ কোন কিছু না ভেবেই কোন লোক যদি আমাদের দিকে তাকিয়ে হেসে কথা বলতে চায়, আমরা এটিকে একেবারে Negative সেন্সে নিয়ে যাই। লোকটি ওমন করে তাকালো কেন? নিশ্চয়ই কোন কুমতলব আছে। আজ কাল তো কাউকেই বিশ্বাস কর যায় না। এর পরিবর্তে, লোকটি নিশ্চয়ই আমাকে পছন্দ করেছেন, আমার সাথে কথা বলতে চান, তাই এখন ভাব করতে এসেছে। আমরা কিন্তু কখনই এরকমটা ভাবি না। কারন আমাদের ৮০% চিন্তা-ভাবনা নেতিবাচকতায়, হতাশায় এবং Reactive দৃষ্টিভঙ্গিতে পরিপূর্ণ যার আল্টিমেইট প্রকাশ হল স্ট্রেস। এই স্ট্রেস জীবনকে কেবল Boring করে না, এটিকে ওজন বাড়ার অন্যতম কারণ হিসেবে ধারনা করা হয়। এই ধারনা থেকে Ohio State University এর একদল বিজ্ঞানী Research করে দেখেছেন যখন কোন মানুষ Stressful থাকে তখন সে- Gresy, Sweet এবং Salty খাবার বেশি খায়। আর এই খাবারগুলোই Metabolism এর হারকে বাধাগ্রস্ত করে। ফলে Callorie শরীরে ফ্যাট হিসেবে জমে ওজন বাড়াতে থাকে। তাই Stress এর ব্যাপারে এখনই সতর্ক হউন।

So, Weight Losing Tips Num-8

Get Ride Of Stress.


দ্রুত গতিতে দোড়ালে আমাদের শরীরে যে কম্পন হয়, হাস্লেও একি ধরনের কম্পন সৃস্টি হয় আমাদের শরীরে। তাই হাল যুগের চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা হাসি খুশি থাকার উপর গুরুত্ব দিচ্ছেন। Vanderbilt University এর ১টি রিচার্সে দেখা গেছে দ্রুত গতিতে হাটলে শরীর থেকে যে ক্যালোরি বার্ন হয়, হাসিতেও Same এমাউন্ট ক্যালোরি বার্ন হয়ে থাকে। Vanderbilt University গবেষক দল দেখেছেন, প্রতিদিন ১০-১৫মি। হাসি প্রায় ৩০-৪০ ক্যালোরি পর্যন্ত বার্ন করে থাকে।যা শরীরে জমে থাকা ফ্যাট কমাতে সহায়তা করে।

So, Weight losing Tips Number-07

Laugh More.


গ্রীন টি পান করেছেন কখনো? খুব সাধারন এই অভ্যাসটি রপ্ত করে আপনি ওজন কমাতে পারেন। Dr. Margaret Wester Terp মনে করেন Green Tea আমাদের ওজন কমাতে সাহায্য করে। কারন এতে থাকা সংক্রামক ফ্যাট বার্নিং প্রসেসকে বৃদ্ধি করে। ফলে এটি যত নিয়মিত গ্রহন করে। ফলে এটি যত নিয়মিত গ্রহন করতে পারবেন তত আপনার Weight Loss করার সম্ভাবনা বাড়তে। তাই ওজন কমাতে চাইলে নিয়মিত Green Tea পান করুন। Green Tea পানের ফলে ওজন আসলেই কমে কিনা? সেটি জানার জন্য Internet এ ও সার্চ করে ধারনা নিতে পারেন।

So, Weight Losing Tips Number-06

Drink Green Tea.


পানির অপর নাম জীবন এবং মরণ। পানি আপনাকে বাঁচাতে পারে আবার মেরে ফেলতেও পারে।কিন্তু জীবন ধারনে পানির ভূমিকা এতোই বেশি যে পানি বীহিন জীবন মৃত্যুর দিকে আমাদের ঠেলে দিতে পারে। পানির হাজার উপকারের মধ্যে অন্যতম একটি উপকার Humboldt University আর German Institute এর একদল চিকিৎসা বিজ্ঞানী প্রমান করেছেন। তারা দেখেছেন পর্যাপ্ত পানি ফ্যাট বার্নিং প্রসেস কে দ্রুততর করে। তাই পর্যাপ্ত পানি পানের মাধ্যমে আমরা শরীরের ওজন কমিয়ে ফিট থাকতে পারি।

So, Weight losing Tips Number-05

Drink More Water.


Nutritional Science University Of Toronto এর করা একটি Research অনুসারে দেখা গেছে- Eatibng Little And Often Reduces Cholestrol Levels By 15% And Insulin Levels By Almost 28%. তাই একেবারে গলা পর্যন্ত না খেয়ে অল্প অল্প করে কয়েকবারে আপনার খাবার সম্পন্ন করুন। যখন আমরা একেবারে অনেক খাবার খাই তখন শরীরে ফ্যাটের পরিমান বাড়ে এবং যখন অল্প করে কয়েকবেলায় খাবারকে ভাগ করে নেই তখন শরীরে ফ্যাট জমার কোন সুযোগ থাকে না। যা খাই তাই ক্ষয় হয়ে যায়। এতোসব বিচার বিশ্লেষন থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে এটি বলা যায় যে খাবারকে ৫/৬ বেলা ভাগ করে অল্প অল্প করে খেলে তা আমাদের শরীরের ওজন কমাতে সাহায্য করে।

So, Weight losing Tips Number -04

Eat less But More Often.


Sugary Drinks ওবেসিটির অন্যতম প্রধান কারণ হিসেবে অভিহিত করেছেন Harvard School Of Public Health. তাছাড়া চিনি এবং চিনি দিয়ে তৈরি হওয়া খাবারগুলো মানব স্বাস্থের জন্য খুবই বিপদ জনক। তাই বিজ্ঞানীরা চিনি এবং চিনি দিয়ে তোইরি পানীয়, এনার্জী ড্রিঙ্কস পুরো বর্জন করার কথা বলেছেন Speceally যারা ওজন কমাতে চান তাদের জন্য এটি Mandatory.

So, Weight losing Tips No-03

Avoid Sugary Drinks.


ওজন কমানোড় প্রয়োজন দেখা দিতেই আমরা – কিভাবে ওজন কমাতে হয় এই Keyword দিয়ে Internet- এ সার্চ করে ওজন কমানোর উপায়গুলো জানার চেষ্টা করি। কিন্তু কী কী অভ্যাসের কারনে এবং কোন কোন খাবার দাবারের কারণে আমাদের ওজন বাড়ছে সেদিকে আমরা তেমন নজর দেই না। এটি শেষ পর্যন্ত রোগের আসল কারণ জানার চেষ্টা না করে, রোগ মুক্তির জন্য জারফুক করে উতলা হওয়ারমত অবস্থা হয়ে যায়। তাই সবার আগেতো আমাদের এটি খুঁজে বের করতে হবে কী কী কারণে আমাদের ওজন বাড়ে।

So, Weight Losing Tips Num-2

Find Out Real Cause.


যদি আপনি সত্যি ওজন কমাতে চান এবং ওজন কমানোর একটি মাত্র উপায়ের কথা আমাকে জিজ্ঞেস করেন তাহলে আমি আপনাকে এই উপায়টির কথা বলব। আপনি শুধু আপনার ভিজুয়ালাইজ পাওয়ার ব্যভার করে মানে আপনার কল্পনা শক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে আপনার ওজন কমাতে পারেন কারণ Your Inner World is the reflextion Of our outer world. যদি আমরা আমাদের Inner World- এ ওজন কমানোর নতুন প্রোগ্রামের আকাঙ্ক্ষা গেঁথে দিতে পারি তাহলে আমাদের Outer World মানে বাহ্যিক ভাবেও ওজন কমানোর যে প্রক্রিয়া তাতে আমরা একাগ্র হতে পারব। ওজন কমানোর নতুন Programme- আপনার Subconscious Mind-এ Save করার জন্য আপনার ওজন কত কেজি থেকে কত কেজিতে কমিয়ে আনতে চান তা ঠিক করে ফেলুন এবং আপনার পছন্দের কোন ব্যক্তির শরীরের সাথে আপনার মুখাকৃতি বা মুখমন্ডল লাগিয়ে সবসময় কল্পনায় নিজেকে ঐ ফিগারে মানে যেমন ফিগার আপনি বানাতে চান তেমন ফিগার এ কল্পনা করুন। দেখবেন ধীরে ধীরে আপনার মন এবং শরীর আপনার কথা শুনতে আরম্ভ করেছে।

So, Weight Losing Tips No- 01

Change Your Inner World.


এই ১১টি টিপসের মধ্যে কোনটি আপনার সবছেয়ে বেশি ভাল লেগেছে এবং ওজন কমানোর ক্ষেত্রে আপানর সবচেয়ে বড় বাধা কোনটি তা আমাকে কমেন্ট করে জানিয়ে দিন।

নিচে কমেন্টস বক্সে আর্টিকেল বিষয়ে মতামত দিন

শেয়ার করার মাধ্যমে আপনার বন্ধুদের এই আর্টিকেল বিষয়ে জানার সুযোগ করে দিন