কিভাবে টিউশনি পাওয়া যায়

Home Tutor যার বাংলা হচ্ছে গৃহ শিক্ষক। আর একজন ভাল শিক্ষক ছাত্র বা ছাত্রীর জীবনকে আলোকিত করার অন্যতম অনুঘটক। আসলে আমরা Tutor বা শিক্ষক শব্দটি শুনলেই কেমন একটা অবহেলা করতে শুরু করি, অথচ এই ব্যক্তিটিই যে আলোকিত মানুষ গড়ার কারিগর আমরা তা বুঝিনা, বোঝার চেস্টাও করি না আর বুঝলেও পাত্তা দেই না। আর্থিক দৈন্যতার কারনে হোক বা স্বেচ্ছা-প্রণোদিত হয়েই হোক, অনেক ছাত্র-ছাত্রিই Tution বা Home Tutor হিসেবে কাজ করতে আগ্রহি হয়ে থাকে। আবার এমন অনেক নজির ও আছে, এই টিউশনি করেই পুরো পরিবারের খরচ বহন করছেন অনেক ছাত্র- ছাত্রী। নিজের পড়াশুনার পাশাপাশি অন্যকে পড়ানোর দায়িত্ব নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন তারা। টিউশনি পাওয়া যে খুব সহজ তা কিন্তু নয়, আসলে বর্তমান প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ বিশ্বে প্রত্যেকটি কাজেরই প্রচুর পরিমানে প্রতিযোগি আছে। তাই Home Tutor হতে চাইলেও আপনার মেধার প্রমাণ দিতে হবে, যোগ্যতার পরিক্ষা দিতে হবে, তবেই আপনি গৃহ শিক্ষক হবার জন্য এগিয়ে আসতে পারেন। আর মেধাবি হলেই যে আপনি টিউশনি পাবেন সেরকম ভাবারও কোন অবকাশ নেই, আপনাকে আপনার বুদ্ধিমত্তার পরিচয় দিতে হবে।তাহলে আসুন জেনে নেই সহজে Home Tutoring Service শুরু করতে পারার সূত্র গুলোঃ


Related Post: কিভাবে সুন্দর ভবিষ্যৎ নির্মান করবেন


১। ভাল প্রস্তুতি রাখুনঃ

পরিক্ষা দেয়ার পর সাধারণত কেউই বই খুলে দেখে না। ফলে ধীরে ধীরে আগের আয়ত্ত্ব করা পড়া গুলো ভুলতে থাকে, কিন্তু মাঝে মাঝে যদি পুরোনো পড়া গুলো আবার চোখ বুলিয়ে নেয়া যায় তাহলে পারা বিষয় গুলো ভাল ভাবে মনে থাকে । আর ভাল ছাত্র হলেই যে ভাল শিক্ষক হবেন তাও নয়, কেননা একাডেমিক রেজাল্ট থেকেও গুরুত্বপূর্ন হলো আপনি কেমন বলতে পারেন, কত সহজে আপনার ছাত্র–ছাত্রীদের বোঝাতে পারেন। তাই সবসময় আপডেট  থাকুন।

২। শুরু করুনঃ

অনেক আগ্রহিরাই শেষ পর্যন্ত Home Tutor হতে পারেননি শুধু শুরু না করার কারনে, তাদের কাছে একজন বা দুজন চোখে লাগে না, এক সাথে ২০ জন পড়ানোর স্বপ্ন দেখতে দেখতেই, সময় চলে যায়। তাই একজন দিয়েই শুরু করুন, আন্তরিকতা দিয়ে পড়ান, আপনার শিক্ষার্থী সংখ্যা বাড়তে থাকবে।


Related Post: কিভাবে অনলাইনে আয় করবেন


৩। যোগ্যতার প্রমান দিনঃ

একটা বিষয় আপনি পারেন অথচ কেউই জানে না, তাহলে তারা আপনার কাছে পড়তে আসবে কেন? আপনি হলে যেতেন? আশেপাশে যারা আছেন তাদের কে ফ্রিতে মাঝে মাঝে পড়া বুঝিয়ে দিন, আপনার সম্ভাবনার দ্বার খুলবে।

৪। বিজ্ঞাপন দিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আশে পাশেঃ

আসলে প্রচারেই প্রসার, উপযুক্ত জায়গা নির্বাচন করে বিজ্ঞাপন দিন, পারলে Ms Word এ নিজেই বানিয়ে ফেলুন নিজের এফিটাফ, না পারলে কম্পিউটার ও প্রিন্টিং দোকানে চলে যান, ওদের অটো ফরমেট করা থাকে। সেখান থেকে পছন্দমত প্রিন্ট করান, সাদা কালো্র সাথে কিছু কালারিং ব্যাকগ্রাউন্ড ও নিতে পারেন, এতে কোনটা বেশি হিট করছে তা বুঝতে পারবেন। আর এই বিজ্ঞাপনের ভাষা সুন্দর করে লিখুন কারন এটিই আপনাকে উপস্থাপন করছে।


Related Post:  কিভাবে ধনী হওয়া যায়


৫। শিক্ষক দিচ্ছি-নিচ্ছিঃ

অনেক শিক্ষক দিচ্ছি নিচ্ছি সাইট আছে যেখানে আপনি আপনার সিভি দিয়ে রাখতে পারেন, সেখান থেকেও প্রচুর ছাত্র-ছাত্রী পাওয়া যায়। শুধু আগ্রহ করে যোগাযোগ করতে হবে।

পরিশেষে এটাই বলা যায়, আপনি যদি হীনমন্যতায় না ভোগেন, সংকোচ আর জড়তা না থাকে তাহলে উপরের স্টেপ গুলো মেনে চললে আপনি অবশ্যই সফল হবেন, ইনশাআল্লাহ।


Youtube Video: কিভাবে টিউশনি পাওয়া যায়


নিচে কমেন্টস বক্সে আর্টিকেল বিষয়ে মতামত দিন

শেয়ার করার মাধ্যমে আপনার বন্ধুদের এই আর্টিকেল বিষয়ে জানার সুযোগ করে দিন