ছাত্র জীবনে প্রেম থেকে দূরে থাকার উপায়

ছাত্র জীবনে প্রেম আমাদের সকল সম্ভাবনাকে নষ্ট করে দেয়। অনেক মেধাবী ছাত্র-ছাত্রী নিজেদের এই প্রেম নামক মোহে হারিয়ে পুরো ভবিষ্যৎ অন্ধকার করে ফেলেছেন। যদিও একটা সময় পরে তারা বুঝতে পেরেছেন এই প্রেমের ক্ষতিকর দিক সম্পর্কে । আজ পর্যন্ত এই প্রেম কোন তৃপ্তি দিতে পারেনি, শান্তি দিতে পারেনি। বরং কেড়ে নিয়েছ জীবনের সকল সম্ভাবনা। তাই তোমাদের সচেতন হতে হবে যাতে ছাত্র জীবনে কোন ভাবেই তোমরা কারও দ্বারা প্রভাবিত হয়ে নিজেদের ক্ষতি না করে বসো। সে কথা ভেবে ছাত্রজীবনে প্রেম থেকে দূরে থকার ৫টি টিপস নিয়ে আজ আমি তোমাদের সাথে আলোচনা করতে চলেছি।

১। ভালো কিছুর সাথে সম্পৃক্ত হওঃ

একটু অবসর পেলে তোমরা কাউকে ফোন করে, মেসেজ পাঠীয়ে, রাতভর ফ্রি কথা বলার সুযোগ কাজে লাগিয়ে অবসর সময় ব্যয় করো। এভাবে তোমাদের মোবাইলের প্রতি, বীপরিত লিঙ্গের প্রতি, রাতভর ঘুম নষ্ট করে-গল্প করার প্রতি ত্রকটা আলাদা টান তৈরি হয়ে যাবে। ধীরে ধীরে তোমরা পড়াশুনার থেকে আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে। কিন্তু তোমরা যদি এসব অপ্রয়োজনীয় কাজগুলোর পরিবর্তে ভাল কিছুর সাথে সম্পৃক্ত হও তাহলে নিজেকে প্রেম থেকে, কারও সাথে সম্পর্কে জড়ানোর সুযোগ থেকে নিজেকে রক্ষা করতে পারবে। সবসময় মনে রাখবে, যে সব ছাত্র-ছাত্রীরা বুদ্ধিমান তারা নিজেদের একাকীত্ব কাটানোর জন্য-প্রেমের কবিতা বা গুল্পশুনা, মোবাইলে কথা বলা, ফেসবুকে চ্যাটিং করা-এসব বাদ দিয়ে-ভালো কোন কাজ করে, ভালো কোন বই পড়ে বা ধর্মীয় কাজের সাথে নিজেকে সম্পৃক্ত রাখে।

২। ক্ষতিকর বন্ধুত্ব থেকে দূরে থাকোঃ

তোমার Best Friend যদি কারও সাথে Relation-এ থাকে, তাহলে সে সব সময় তোমার সাথে তার Gril Friend নিয়ে গল্প করতে চাইবে। এতে করে তোমারও এইসব বিষয়ে আগ্রহ তৈরি হবে। আর তোমার বন্ধুও চাইবে যাতে তোমারও ত্রকজন Girl Friend থাকে। এরকম বন্ধুত্ব থেকে একা চলা অনেক ভালো। তাই তোমার যেসব বন্ধু এই প্রেম রোগে আক্রান্ত তাদের থেকে দূরে থাকো।

৩। সম্পর্কের ধরনে সচেতন হওঃ

ছাত্রজীবনে ছেলে মেয়েদের মধ্যে স্বাভাবিক সুসম্পর্ক থাকবে। যদি সহপাঠী হয় তাহলে সহপাঠী সুলভ, যদি প্রতিবেশি হয় তাহলে প্রতিবেশি সুলভ, আত্মীয় হলে আত্মীয় সুলভ আচরণ করতে হবে। অর্থাৎ প্রতিটি সম্পর্কের যে সীমা রয়েছে সে সীমা কখনও অতিক্রম করবে না, কেউ তোমার সাথে করতে চাইলে তাদেরও পাত্তা দিবে না। তাহলে তুমি প্রেম থেকে দূরে থাকাতে পারবে।

৪। প্রেমজনিত সমস্যা ত্রড়িয়ে চলোঃ

যেহেতু প্রেম, এবং ভালোবাসার সাথে একটা মানসিক আবেগ জড়িত তাই তোমরা কখনো এমন ভাবতে পারো যে আমিতো প্রেম করছিনা- একটু অন্যদের প্রেম বা তাদের প্রেমের সমস্যা নিয়ে শুনলে ক্ষতি কি। সাবধান! এটাই ফাঁদ। অন্যের প্রেমের গল্প বা কাহিনী বা সমস্যা শুনতে গিয়ে-তুমিও ওই একি রোগে আক্রান্ত হয়ে যেতে পারো। তাই যেখানেই এসব আলোচনা শুনবে-দ্রুত সে আসর ত্যাগ করবে।

৫। চিন্তা-ভাবনা সচেতন থাকো

আমরা নিজেদের অজান্তে অনেক সময় কল্পনার রাজ্য হারিয়ে যাই। অন্য কোন অচেনা-অজানা মেয়েকে কল্পনার রাজ্যের রানী বানিয়ে ফেলি। যেহেতু চিন্তা বাস্তবতার জন্ম দেয়, ক্রমাগত এমন ভাবনা-বাস্তবেও আমাদের প্রাভাবিত করে। তখন কারও সাথে কথা বলতে, এবং দেখা করতে ইচ্ছা করে। আর ত্রভাবেই আমরা নিজেদের প্রেমের চোরাবালিতে হারিয়ে ফেলি। তাই সব সময় এসব ভাবনা থেকে দূরে থাকবে এবং কী চিন্তা করছো সে ব্যাপারে সচেতন থাকতে হবে…।

নিচে কমেন্টস বক্সে আর্টিকেল বিষয়ে মতামত দিন

শেয়ার করার মাধ্যমে আপনার বন্ধুদের এই আর্টিকেল বিষয়ে জানার সুযোগ করে দিন