কিভাবে সফল হবেন

সবাই সফল হতে চায়, সাফল্য পেতে চায়। কেউ সফল হয়, কেউ সাফল্যের ছোঁয়া থেকে বঞ্চিত হয়। আমরা সাফল্যের জন্য কত পদক্ষেপ গ্রহন করি, কিন্তু সব কাজে, সব উদ্যোগে কি আমরা সফল হই? না, কেন হই না? সফল যদি হতে চাও তাহলে এই বিষয় গুলো আমাদের জানতে হবে।

কারণ সফল হওয়ার যে প্রক্রিয়া তা আমরা হয়ত জানি কিন্তু মানি না। তাই এটি খুব জরুরি যে সাফল্যের যত ফর্মুলা আছে সেগুলো জানা এবং জানার পর মানায় রুপান্তর করা। পৃথীবির যত সফল ব্যবসা, সফল ব্যক্তি আছেন, সবাই সাফল্যের একটা পথ-পদ্ধতি-ফর্মুলা অনুসরন করেছেন। তাই সফল হওয়ার উপায় গুলো বাস্তবিকভাবে জানার জন্য দেশীয় এবং আন্তর্জাতিকভাবে সফল মানুষদের আচরণ, সফল ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কর্ম পদ্ধতি এবং বিভিন্ন সময়ে, পরিস্থিতিতে নেয়া সিদ্ধান্তগুলো সম্পর্কে আমাদের জানতে হবে। সফল হওয়ার জন্য সাফল্যের যে প্রক্রিয়া আছে তা আমাদের জানতে হবে। যে ট্রিকস আছে সেগুলো আমাদের অবলম্বন করতে হবে। 

সফল হওয়ার জন্য আমার কাছে সবছেয়ে বড় ফ্যাক্টর যেটি মনে হয় তা হল শুরু করা এবং ধারাবাহিক ভাবে লেগে থাকা। আসলে আমাদের মধ্যে কি হয়? আমরা দ্রুত প্রভাবিত হয়ে যাই। আমরা প্রথমে একটি স্বপ্ন দেখি, লক্ষ্য নির্ধারন করি। সে লক্ষ্য নিয়ে চিন্তা ভাবনা করি এবং দ্রুত কাজ শুরু করি। কিন্তু ফলাফল? দ্রুতই কাজটি ছেড়ে দেই। কাজ শেষ না করে হাল ছেড়ে দেই এবং একটি যুক্তি ঠিক করে রাখি এই কাজে ব্যর্থতার জন্য। এবং আরো দ্রুত এই লক্ষ্য ভুলে নতুন লক্ষ্যে ঝাঁপিয়ে পড়ি। নতুন লক্ষ্য নির্ধারণে এতটুকুন যৌক্তিকরা বিচার বিশ্লেষন করিনি যে আসলে নির্ধারিত এই নতুন লক্ষ্য আমাদের জীবনের চাওয়া-পাওয়ার সাথে কতটুকু সম্পর্ক রয়েছে।
তাই মনে রাখতে হবে, আসলে সফল হওয়ার কোন শর্ট কার্ট ফরমুলা নেই। একদিনে কোটিপতি হওয়ার কোন ওয়ে নেই। সাফল্য বিরামহীন একটি প্রক্রিয়া। সেজন্যে কোন কাজ হাতে দেয়ার আগে সে কাজের সাথে আপনার জীবন প্রনালী কতটুকু যায় সেটা যাচাই করে নেয়াটা প্রয়োজন।

আবার যে কোন কাজ হাতে নিয়ে একদিনে সব শেষ করে ফেলার সংকল্পের দরকার নেই। দরকার অল্প অল্প করে শুরু করা, ছোট ছোট পদক্ষেপ নেয়া। এই কাজটি প্রতিদিনের একটি অভ্যাসে পরিণত করা। যদি একদিন ৮ ঘন্টা কাজ করে বাকি ১৫ দিন খবর না থাকে তাহলে কি লাভ হল? এর ছেয়ে প্রতিদিন ১ ঘন্টা করে কাজ করলে ১৫ ঘন্টা কাজ হয়ে যেত এতোদিনে। এতে কাজের চাপও মনে হত না। রিলাক্সে কাজ করা যেত। আর ধারাবাহিকতা সফলতার পূর্ব শর্ত। তাই জীবনে যাই করুন সফল যদি হতে চান, যেটাই করুন, সে কাজে ধারাবাহিকতা অর্জনের চেষ্টা করুন। তাহলে আপনি সফল ব্যাক্তি হবেন, স্মরণীয় হবেন, সফল ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার হবেন।

নিচে কমেন্টস বক্সে আর্টিকেল বিষয়ে মতামত দিন

শেয়ার করার মাধ্যমে আপনার বন্ধুদের এই আর্টিকেল বিষয়ে জানার সুযোগ করে দিন