কিভাবে একজন আদর্শ গৃহ শিক্ষক খুঁজে পাবেন

একজন শিক্ষার্থীর জীবনে ভাল গৃহ শিক্ষকের ভূমিকা অপরিসীম। গৃহ শিক্ষক যদি জ্ঞানী হন, প্রজ্ঞাবান হন, আলোকিত মনের মানুষ হন তাহলে সে আলোর ছটা তার শিক্ষার্থীদের মাঝেও ছড়িয়ে পড়ে। আর গৃহ শিক্ষক যদি ভাল না হন, চরিত্রবান না হন, তার যদি বিষয়ভিত্তিক জ্ঞান না থাকে তাহলে এর পুরো প্রভাব পড়বে শিক্ষার্থীর মাঝে যা শিক্ষার্থীর এগিয়ে যাওয়ার গতিকে থামিয়ে দিতে পারে, নষ্ট করে দিতে পারে সব সম্ভাবনা। সেজন্য একজন শিক্ষার্থী হিসেবে বা একজন অভিভাবক হিসেবে, সব সময় চেষ্টা করতে হবে যাতে বিষয়ভিত্তিক জ্ঞানে জ্ঞানী, সৎ, চরিত্রবান, এবং নৈতিকতাবোধ সম্পন্ন কাউকে শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার জন্য। কাউকে গৃহ শিক্ষক হিসেবে Appoint করার আগে কমপক্ষে ২/৩টা ডেমো ক্লাস তাকে দিয়ে করাতে হবে। সেই সাথে শিক্ষকের প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা, একাডেমিক রেজাল্ট ইত্যাদি বিষয়ে তার সাথে কথা বলে অনুমান করার চেষ্টা করতে হবে যে- গৃহ শিক্ষক হিসেবে তিনি কেমন হবেন।

ডেমো ক্লাস চলাকালীন সময়ে শিক্ষকের যে দিক গুলো খেয়াল করতে হবে সেরকম ৪টি টিপস আজ আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করতে চলেছি। এই ৪টি টিপস মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপুর্ণ টিপসটি আমি ১ নং পয়েন্টে আলোচনা করেছি। তো চলুন শুরু করা যাকঃ-

Tips No 5: Honesty and Ethics

একজন শিক্ষকের কাছ থেকেই বাচ্চারা সততা এবং নৈতিকতা্বোধের শিক্ষা পাবে কিন্তু শিক্ষকই যদি অসৎ হন, আযোগ্য হয়ে থাকেন এবং মিথ্যে কথা বলেন তাহলে শিক্ষার্থীরা তার কাছ থেকে কিছুই শিখতে পারবে না।

টিচার হিসেবে চুয়ান্ত নিয়োগের আগে, ২/৩টি ডেমো ক্লাসেই আমাদের বুঝার চেস্টা করতে হবে যে টিউটর হিসেবে এই শিক্ষক কেমন হবেন।

ডেমো ক্লাস নেওয়ার সময় গৃহ শিক্ষক যদি কোন টপিক বোঝাতে গিয়ে ঠিকমত বোঝাতে না পারেন আর শিক্ষার্থীকে এটি তেমন গুরুত্বপূর্ন নয়, এটি পরিক্ষায় আসবে না এমন কথা বলে Skip করতে চান তাহলে তিনি ভালো শিক্ষক হতে পারেন না। যদি কোন টপিক নিয়ে সমস্যার পড়ার পর শিক্ষক এমন বলেন, এটি সমাধান করতে বা বোঝাতে আমার একটু অসুবিধা হচ্ছে, বিষয়টি আমি ভালো করে দেখে এসে আগামীকাল বুঝিয়ে দিব তাহলে নিসন্দেহে এই শিক্ষক ভালো হবেন এবং তাকে আপনার গৃহ শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দিতে পারেন।

Tips No- 4: Regularity and pantuality

শুধুমাত্র একজন টিচার হিসেবে নয় বরং একজন মানুষ হিসেবে আমাদের সবার মাঝে নিয়মানুবর্তিতা এবং ধারাবাহিকতা থাকা উচিত। পড়ানোর শুরুরদিকে বা ডেমো ক্লাস চলার সময় যদি শিক্ষক সময়মত না আসেন তাহলে আপনার বাচ্চা পড়াশুনা থেকে পিছিয়ে যেঁতে পারে। আবার যে শিক্ষক নিয়মানুবর্তিতা এবং ধারাবাহিকতার গুরুত্ব বোঝে না তিনি আপনার সন্তানকেও ভালোকিছু শেখাতে পারবে না। তাই ডেমো ক্লাস চলাকালীন সময় শিক্ষকের গতিবিধি খেয়াল রাখুন। কিন্তু যদি সত্যিকার অর্থেই শিক্ষকের অসুবিধা হয়ে থাকে এবং তিনি সময়ের আগেই আপনাকে অবহিত করেন ও পরবর্তী কোন সময়ে পরিয়ে দিবেন সেটি নিশ্চিত করেন তাহলে সেই শিক্ষকের প্রতি উদার হয়ে হবে।

Tips no- 3: Motivation and Adaptability

আমাদের একটা জায়গায় খুব clear থাকতে হবে যে, একজন স্কুলের শিক্ষক এবং একজন গৃহশিক্ষকের পড়ানোর স্টাইলের মধ্যে অনেক পার্থক্য থাকবে। একজন স্কুল শিক্ষকের লক্ষ থাকে তার সময় এবং সিলেবাসের দিকে। নির্দিষ্ট  সময়ের মধ্যে সিলেবাস শেষ করতে পারলেই তিনি মনে করেন তার কর্তব্য শেষ হয়ে গেছে। কিন্তু যিনি একজন গৃহ শিক্ষক হবেন সময়ের খেয়াল রাখার পাশাপাশি বিভিন্ন বিষয়ে শিক্ষার্থীর শক্তি ও দূর্বলতা বুঝে শিক্ষার্থীকে গাইড করবেন। সময়মতো সিলেবাস শেষ না হলেও তিনি বিরক্ত না হয়ে, তাড়াহুড়ো না করে ধৈর্য্য সহকারে সিলেবাস শেষ করার চেষ্টা করবেন। এক্ষেত্রে শিক্ষার্থীর মানসিক অবস্থা বা মনস্তত্ত্ব বুঝে তার মেচিউরিটি অনুযায়ী তাকে কাউন্সিলিং করাবেন, পরামর্শ দিবেন, প্রয়োজনে শিক্ষার্থীর আগ্রহ এবং মনযোগ বাড়ানোর জন্য তাকে উৎসাহ, উদ্দীপনা, সাহস এবং মোটিবেশন দিবেন। যে শিক্ষক শিক্ষার্থী দু একদিন পড়া না পারলেই বিরক্ত হয়ে যান এবং শিক্ষার্থীকে নেতিবাচক কথা শোনান তিনি ভাল শিক্ষক হতে পারেন না। তাই পড়ানো শুরুর দু এক দিনের মধ্যেই শিক্ষকের আচরনে ইতিবাচকতা এবং কথায় মোটিবেশন বা প্রেরণা আছে কিনা সেটি নিশ্চিত হয়ে চূড়ান্তভাবে তিনার সাথে কথা কথা বলবেন।

Tips no 2: Delivery

শিক্ষকের বলার ক্ষমতা, বোঝানোর দক্ষতা ছাত্র ছাত্রীদের দুর্বলতা কাটিয়ে পড়ার টপিক ভাল ভাবে বুঝতে সাহায্য করে। একই পাঠ একেক টিচার একেক রকম উপমা, গ্রাফ, চার্ট বা উদাহরন দিয়ে বুঝিয়ে থাকে। আবার কেউ কেউ না বুঝিয়ে কোন রকম নয় ছয় করে সিলেবাস শেষ করতে চান। তাই এমন কাউককে শিক্ষক হিসেবে নির্বাচন করতে হবে যিনি যে কোন জিনিস সহজে শিক্ষার্থীদের বোঝাতে পারেন।

আমরা অনেক সময়ত একাডেমিক রেজাল্ট দেখে শিক্ষক নিয়োগ দিয়ে দেই। এক্ষেত্রে আমাদের মাথায় রাখতে হবে ভাল ছাত্র হলেই যে ভাল শিক্ষক হবেন বা ভাল বোঝাতে পারবেন অথবা ভাল পড়াতে পারবেন এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তাই পড়ানোর শুরুতেই শিক্ষক ভাল ভাবে বিষয়ভিত্তিক টপিক বোঝাতে পারেন কিনা সেটি নিশ্চিত হয়ে নিতে হবে।

Tips no- 1: Subject Knowledge

গৃহ শিক্ষক নির্বাচনে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেওয়া উচিত শিক্ষকের কতটুকু বিষয় ভিত্তিক জ্ঞান রয়েছে। কেননা অন্যান্য সব যোগ্যতা থাকার পরেও যদি যে বিষয়ে শিক্ষার্থীকে পড়াতে হবে সে বিষয়ে শিক্ষকের জ্ঞান না থাকে তাহলে সে শিক্ষক নিয়োগ দিয়ে আখেরে কোন লাভ হবে না।

টিচার হিসেবে Appoint এর আগে প্রাথমিক আলাপকালে আপনি যে বিষয়ের টিচার খুঁজছেন সে বিষয়ে এই টিচারের কেমন দক্ষতা রয়েছে সেটি জেনে নিন। কিছু সাধারণ প্রশ্ন করেই আপনি বুঝতে পারবেন এই টিচার এর কতটুকু সাবজেক্ট নলেজ আছে। এক্ষেত্রে আপনি নিজে অথবা অন্য কাউকে দিয়ে কথা বলিয়ে এই টিচার এর বিষয় ভিত্তিক জ্ঞান সম্পর্কে জানতে পারেন।

মনে রাখবেন, এমন শিক্ষকের দরকার নেই যিনি নিজেই যে সাবজেক্ট আপনার বাচ্চাকে পড়াতে হবে সে সাবজেক্ট ভালো বোঝে না। তাই শিক্ষকের বিষয় ভিত্তিক জ্ঞান সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে বাকি কথা বার্তা সামনে আগান এবং এটিকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিন।

সব শেষে একটা ছোট্ট অনুরোধ করছি, যদি এই লিখাটি আপনার ভাল লেগে থাকে তাহলে ভিডিওটি আপনার সব বন্ধুদের মাঝে ছড়িয়ে দিন, এরকম আরো তথ্যপূর্ণ ভিডিও দেখতে আমার এই চ্যানেলটি এক্ষুনি সাবস্ক্রাইব করে নিন।  

নিচে কমেন্টস বক্সে আর্টিকেল বিষয়ে মতামত দিন

শেয়ার করার মাধ্যমে আপনার বন্ধুদের এই আর্টিকেল বিষয়ে জানার সুযোগ করে দিন

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.